fbpx

ইন্টারনেট থেকে যেকোনো কিছু ফ্রিতে কীভাবে শিখবেন?

how to learn from internet

বর্তমান প্রযুক্তির সবচেয়ে বড় আবিস্কার হল ইন্টারনেট। বর্তমানে আপনার হাতে ইন্টারনেট থাকা মানে পুরা দুনিয়াটা আপনার হাতের মুঠোই। অফলাইন থেকে এখন মানুষ যা কিছু শিখতে পারে তার থেকে বেশি এখন মানুষ অনলাইন থেকে শিখতে পারে। বর্তমানে নতুন কিছু শেখার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হলো ইন্টারনেট। এর মাধ্যমে আপনি মুহূর্তের মধ্যে যা শিখতে চান সব কিছু খুজে পাবেন এবং শেখার সেই রিসোর্স গুলা যদি সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে পারেন তবে আপনি হয়ে যাবেন সফল একজন মানুষ।

আজকের এই আর্টিকেলের টাইটেল দেখে নিশ্চয় বুঝতে পারছেন আজকে আমরা কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। ইন্টারনেট থেকে আপনি কি ভাবে খুব সহজে কোন কিছু শিখতে পারবেন এবং সেটা সঠিক ভাবে প্রয়োগ করে কি ভাবে জীবনে সফল হবেন সেই বিষয় নিয়ে আজকে আপনাদের সুন্দর সঠিক একটা ধারনা দিব এবং সাথে কিছু ওয়েবসাইট নাম বলে দিব যেখান থেকে আপনি চাইলে অনেক কিছু শিখতে পারবেন।

ইন্টারনেট থেকে শিখার সুবিধা কি কি?

ইন্টারনেট থেকে শিখার অনেক সুবিধা রয়েছে। যেমন >> কন্টেন্ট ফরম্যাটঃ  ইন্টারনেট থেকে কোন কিছু শিখার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল আপনি যে বিষয়ে শিখতে চান সে বিষয়ের অনেক গুলা ফরম্যাট পাবেন। আপনি চাইলেই আপনার সুবিধা মত ফরম্যাট শিখতে পারবেন। যেমন, টেক্সট, ইমেজ, ভিডিও ও অডিও। আপনি আপনার স্বাধীন মত শিখতে পারবেন।

জায়গাঃ যেখানে ইন্টারনেট সংযোগ রয়েছে সেখান থেকে আপনি শিখতে পারবেন। আপনি আপনার রুমের মধ্যে বসে শিখতে পারবেন।

সময়ঃ ইন্টারনেট থেকে কোন কিছু শিখার আরও একটি সুন্দর সুবিধা হল সময়। যেহেতু ইন্টারনেট সব কিছু অনলাইনে আপনি শিখতে পারবেন সেহেতু আপনার যাতায়াত সময় অনেক বেঁছে যাবে। যে সময়টা আপনি ইন্টারনেট দিয়ে আরও নতুন কিছু শিখতে পারবেন।

ডিভাইসঃ আপনার হাতে থাকা মোবাইল ডিভাইস দিয়ে আপনি শিখতে পারবেন। তবে কম্পিউটার অথবা পিসি হলে ভাল হয়।

অনলাইন কোর্স বা ট্রেনিংঃ বর্তমান সময়ে অনেক ভাল মানের অনলাইন একাডেমী বিভিন্ন বিষয়ের উপর অনলাইন কোর্স করিয়ে থাকে বা অনেকই লাইভ ট্রেনিং ক্লাস নিয়ে থাকে আপনি চাইলে ঘরে বসে সেখান থেকে শিখতে পারেন এবং কোর্স কমপ্লিট করার পর আপনি সার্টিফিকেট পাবেন। তাদের বিভিন্ন গ্রুপে জয়েন হয়ে আপনি বিষয় ভিত্তিক অনেক আলোচনায় অংশগ্রহন করতে পারবেন। এটি আপনার শেখার কাজকে সহজ আর উপভোগ্য করে তুলবে।

ইন্টারনেট থেকে কি কি শিখতে পারবেন?

দৈনন্দিন জীবনের স্কিল

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অনেক বিষয় রয়েছে যে বিষয় গুলা আপনি খুব সহজে ইন্টারনেট থেকে শিখতে পারবেন। এমন কিছু স্কিল আছে যেগুলো শিখলে আপনার প্রতিদিনের জীবনে কাজে দেবে। ইন্টারনেটে প্রচুর ভিডিও রয়েছে শুধু এসব স্কিলের উপর। যা দেখে আপনি একটা ভাল ধারনা নিতে পারবেন। যেমন-

  • রান্নাবান্না ও বেকিং
  • বাসা পরিষ্কার ও বাসা সাজানো
  • ছাদ বা বেলকনি বাগান
  • হাতের তৈরি হস্ত শিল্প

শখের বিষয়

আমাদের সবার জীবনে কিছু না কিছু শখের বিষয় থাকে আপনি চাইলে আপনার শখের সেই বিষয় গুলা ইন্টারনেট থেকে শিখতে পারেন। যেমন-

  • ফটোগ্রাফি
  • নাচ
  • গান করা
  • কাপড়ের ডিজাইন
  • বাগান করা
  • ছবি আকা
  • কাগজ দিয়ে অনেক জিনিস বানানো

যোগাযোগ আর ভাষার দক্ষতা

আমাদের মাতৃভাষা ছাড়াও আরও অন্য সকল ভাষা শিখার সবচেয়ে ভাল এবং বড় মাধ্যম হল ইন্টারনেট। সোশ্যাল মিদিয়ার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন দেশের মানুষের সাথে কমনিকেশন মাধ্যমে শিখতে পারবেন। এ ছাড়া বর্তমানে অনেক ভাল মানের মোবাইল অ্যাপ এবং ইউটিউবে অনেক ভালও মানের ভিডিও রয়েছে। এরকম অনেক কমিউনিটির সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করে নতুন একটি ভাষা আয়ত্ত করতে পারবেন আপনি।

জ্ঞান বিজ্ঞানের যে কোন বিষয়

পাঠ্য বইয়ের অংক থেকে শুরু করে মহাকাশ বিজ্ঞান সকল বিষয়ে ধারনা পেতে ইন্টারনেট ভাল একটি জায়গা। তবে যে বিষয় গুলা হাতেকলমে পরীক্ষানিরীক্ষা করে শেখার ব্যাপার সে সকল বিষয় ছাড়া বাকি সব কিছু আপনি ইন্টারনেট শিখতে পারেন। এই জ্ঞান বিজ্ঞান সহ সকল বিষয়ে শিখার এবং জানার জন্য নলয়েজ শেয়ারিং এর সেরা একটি প্ল্যাটফর্ম MSB Ask. যেখানে প্রশ্ন উওর এর মধ্যে অনেক নতুন নতুন তথ্য জানতে পারবেন এবং আপনি যা জানেন সেটা সবার সাথে ব্লগ এবং পোস্ট লেখার মধ্যে শেয়ার করতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার ও অ্যাপ্লিকেশন চালানোর স্কিল

পড়াশোনা করুন বা চাকরি করুন কম্পিউটারের সাধারণ ব্যবহার আপনাকে জানতেই হবে। এর মধ্যে রয়েছে কয়েকটি সফটওয়্যার আর অ্যাপ্লিকেশন। যেমন:

  • মাইক্রোসফট অফিস (এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল, এমএস অ্যাক্সেস, পাওয়ারপয়েন্ট)
  • গুগল অ্যাপস (জিমেইল, গুগল ড্রাইভ, গুগল ডকস, গুগল শীটস, গুগল স্লাইডস, গুগল মিট)

এসব সফটওয়্যার আর অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার ধাপে ধাপে শেখার জন্য অসংখ্য টিউটোরিয়াল আপনি খুঁজে পাবেন ইন্টারনেটে। তাছাড়া এম এসবি একাডেমী এই সকল স্কিলের উপর কোর্স রয়েছে যেখানে আপনি রিসোর্স সহ শিখতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় ডিজিটাল স্কিল

বর্তমান সময়ে একম কিছু ডিজিটাল স্কিল রয়েছে যা আপনি ইন্টারনেট এর মাধ্যমে অনলাইন থেকে শিখতে পারবেন এবং এই স্কিল যদি আপনি অর্জন করে আপনি ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। ফ্রিল্যাসিং সহ নানা রকম সেক্টরে কাজ করে আপনি চাকরীর পাশা পাশি ভাল একটা পেসিভ ইনকাম করতে পারবেন। স্কিল গুলা হল-

  • গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ওয়েব ডিজাইন
  • ভিডিও এডিটিং
  • অ্যানিমেশন
  • সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট
  • ডিজিটাল মার্কেটিং

এম এস বি একাডেমীতে উপরের সকল বিষয়ের উপর ভাল মানের কোর্স রয়েছে আপনি চাইলে কোর্সে জয়েন হয়ে উপরের এই স্কিল গুলা অর্জন করতে পারেন। কোর্সের এক্সেস লাইফ টাইমের জন্য পাবেন যেখানে আপনি আপনার সময় সুযোগ মত শিখতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল অনলাইন থেকে ইনকাম করার বর্তমান সময়ে সবচেয়ে সহজ মাধ্যম। আপনি যে পেশাতে থাকুন না কেন আপনি যদি প্রতিদিন ২/৩ ঘণ্টা অনলাইনে সময় দিতে পারেন তাহলে প্রতি মাসে ভাল একটা ইনকাম আপনি করতে পারবেন এই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে কোন রকম ইনভেস্ট ছাড়া। আপনি যদি এই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে চান তাহলে এম এস বি একাডেমীর অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন হতে পারেন। যেখানে আপনি প্রতি সেলে ২০% করে কমিশন পাবেন। বলতে পারেন শেখার পাশাপাশি ইনকাম।

ইন্টারনেট থেকে কি ভাবে যেকোন কিছু শিখবেন?

শেখার উদ্দেশ্য দুই ধরনের হয়ে থাকে শেখার জন্য শেখা আর কিছু করার জন্য শেখা। আপনি চাইলে ইন্টারনেট থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবেন কিন্তু যদি সঠিক পরিকল্পনা করে না শিখেন তাহলে সে শেখা কোন কাজে আসবে না। তাই শেখার আগে আপনাকে কিছু বিষয় ঠিক করতে হবে। যেমন-

  • লক্ষ্য ঠিক করুন
  • অনলাইন সার্চ কে সঠিক ভাবে কাজে লাগান
  • শেখার জন্য পরিকল্পনা তৈরি করুন
  • প্রয়োজনীয় রিসোর্স এর তালিকা বানান
  • অনলাইন কোর্স বা ট্রেনিং করুন

লক্ষ্য ঠিক করুন

কোন কিছু শেখার আগে শেখার লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য ঠিক করুন। শেখার জন্য শিখবেন নাকি সেটা বাস্তব বা কর্মজীবনে প্রয়োগ করবেন। সেটা কি ফ্রিতে শিখতে চান নাকি অর্থ ব্যয় করে শিখতে চান। লক্ষ্যভেদে আপনার শেখার পদক্ষেপগুলো ভিন্ন রকম হবে। অনলাইনে শুধু জানার জন্য শিখতে চাইলে হয়তো আপনি কম খরচ আর পরিশ্রম করতে চাইবেন। আর ব্যক্তিগত ও পেশাদারি জীবনে কাজে লাগানোর জন্য শিখতে হলে অনলাইনের বিভিন্ন ট্রেনিং কোর্স বা সার্টিফিকেট কোর্স করার কথা বিবেচনা করুন। কারন কোর্স বা ট্রেনিং এ একজনের তত্ত্বাবধায়নে আপনি শিখতে পারবেন এবং সকল ধরনের গাইডলাইন পাবেন।

অনলাইন সার্চ কে সঠিক ভাবে কাজে লাগান

গুগল প্রতি সেকেন্ডে গড়ে ৪০ হাজার অনুসন্ধানের জবাব বের করে!!! প্রতিদিন যার মানে সাড়ে তিন বিলিয়ন অনুসন্ধান। যা শিখতে চান সে বিষয়ে সার্চ ইঞ্জিনে তথ্য খুঁজুন। এক্ষেত্রে সে বিষয়ে কী কী শেখার সুযোগ রয়েছে, সে সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা পেয়ে যাবেন। এ ধারণার ভিত্তিতে পরিকল্পনা বানাতে সুবিধা হবে। ম্যাক্সিমাম ক্ষেত্রেই আপনি আপনার দরকারি সব কিছুর রিসোর্স ফ্রিতেই পাবেন। কিন্তু কোন বিষয়ে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে বা কারো সরাসরি সাপোর্ট লাগলে সেই ক্ষেত্রে অনলাইনে আপনার পেমেন্ট করে কোর্স বা অন্যান্য বিষয় কেনা লাগতে পারে।  

শেখার জন্য পরিকল্পনা তৈরি করুন

কোন সময়ে কী কী শিখতে চান, সে অনুযায়ী আপনার পরিকল্পনা বানিয়ে নিন। এ পরিকল্পনা অনেকটা সিলেবাসের মতো কাজে দেবে। মনে রাখবেন পরিকল্পনা হীন কোন কাজে কখনও সফলতা আসে না।

রিসোর্স এর তালিকা বানান

আপনি যে বিষয়ে শিখতে চাচ্ছেন তার রিসোর্স তালিকা বানান। আপনি যে বিষয়টি জানতে বা শিখতে চাইছেন, তার উপর প্রয়োজনীয় রিসোর্স হতে পারেঃ

  • গুগল সার্চ এর ইনফরমেশন
  • ইউটিউবে থাকা ভিডিও
  • বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ফ্রি ব্লগ যেখানে অভিজ্ঞ লোকেরা লেখালেখি করে
  • বিভিন্ন ওয়েবসাইটে থাকা ফ্রি কন্টেন্ট

অনলাইন কোর্স বা ট্রেনিং করুন

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দক্ষতা অর্জনের জন্য আর বাস্তবসম্মত নির্দেশনা পেতে অনলাইন কোর্স বা ট্রেনিং করতে পারেন। বিশেষ করে ব্যক্তিগত ও পেশাদারি জীবনে কাজে আসে, এমন দক্ষতার বেলায় এটি প্রযোজ্য। বর্তমানে অনেক অনলাইন একাডেমী বিষয় ভিত্তিক স্কিলের উপর অনলাইন কোর্স করিয়ে থাকেন। যে কোর্স গুলা টাকা খরচ করে করতে হবে।

তবে অনলাইন কোর্স করার ক্ষেত্রে কিছু বিষয়ে একটু সতর্ক থাকবেন দামে কম দেখে সস্তা কোন কোর্স করবেন না এতে করে আপনার টাকা এবং সময় দুইটাই নষ্ট হবে। তাই আমি আপনাকে পরামর্শ দিব আপনি এম এসবি একাডেমীতে সকল বিষয়ে High-quality কোর্স পাবেন, সেই কোর্স গুলা করতে পারেন। এম এসবি একাডেমীর যেকোনো কোর্স একবার এনরোল করলে, সেই কোর্সের লাইফ টাইম এক্সেস এবং সাপোর্ট পাবেন। আর কোর্সের সাথে দরকারি প্রয়োজনীয় সব রিসোর্স পাবেন যা কাজ করতে আপনাকে অনেক সহায়তা করবে।

পরিশেষে বাণী চিরন্তন, অনলাইন হল জ্ঞান আহরণের সমুদ্র। ধৈর্য ধরে শিখতে পারলে অনেক কিছু শিখতে পারবেন অনেক দূর যেতে পারবেন। অনলাইনে কোনো কিছু শেখার পুরো প্রক্রিয়াটি একান্ত আপনার উপর নির্ভর করবে। অনলাইনে আপনি ফ্রিতে শিখতে গেলে বেসিক ধারনা পাবেন। তবে যদি কম সময়ে সব কিছু গুছানো ভাবে শিখতে চান তাহলে অবশ্যই অনলাইন পেইড কোর্স করবেন। আর অবশ্যই ভাল মানের একাডেমী থেকে।

Leave a Reply

error: