Blog

সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে যেই ১০টি কাজ করা যাবে না

freelancing msb academy

আমরা সবাই যার যার সেক্টর থেকে সফল হতে চাই। আমরা চাকরী করলে সেখানে সফল হতে চাই, পড়াশোনা করলে সেখানে সফল হতে চাই, কোন বিজনেস করলে সেখানেও সফল হতে চাই। আসলে আমাদের প্রতিটা কাজের পিছনে একটা উদ্দেশ্য থাকে সেটা হল সফল হওয়া। কিন্তু সফলতা এমনেই আসবে না, তার জন্য আপনাকে কিছু নিয়ম মানতে হবে। কিছু কাজ করতে হবে এবং কিছু কাজ এড়িয়ে চলতে হবে। যারা ফ্রিল্যান্সিং করে সফল হতে চান বা নতুন যারা ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে চান তারা কোন কাজগুলা এড়িয়ে চললে সফল হতে পারবেন সেই রকম ১০ টি কাজের ব্যপারে আজকের ব্লগে আমি আলোচনা করব।

সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে যেই ১০টি কাজ করা যাবে না

শুধু স্কিল থাকলেই আসলে মার্কেটপ্লেসে ভালো করা যাবে এমনটা কিন্তু না। একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে যেই কাজের সার্ভিস দিবেন, সেই কাজের পাশাপাশি আরও কিছু আনুষঙ্গিক গুণ আপনার মধ্যে থাকতে হবে। আপনাকে কিছু নিয়ম মানতে হবে, এমনকি কিছু কাজ কখনও করা যাবে না।

১) আত্মবিশ্বাস হারানো যাবে না

আপনি যদি সফল ফ্রিল্যান্সার হতে চান তাহলে আপনার নিজের ভিতর আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে। কখনও আত্মবিশ্বাস হারানো যাবে না। আমাকে দিয়ে হবে না। আমি পারব না এই রকম চিন্তা করা যাবে না। একটা কথা মনে রাখতে হবে, আমরা কেউ আসলে কোন কিছু মায়ের পেট থেকে শিখে বা অভিজ্ঞতা নিয়ে আসি না। তাই কোন সময় হতাশ হওয়া যাবে না। আমি পারব এইরকম আত্মবিশ্বাস সব সময় নিজের মধ্যে রাখতে হবে। প্রতিনিয়ত নতুন কিছু শিখার মেন্টলিটি নিজের মধ্যে রাখতে হবে।

২) নির্দিষ্ট বিষয়ে দক্ষ হতে হবে

আপনি যে কাজটি জানেন সেই কাজের সার্ভিস দিয়ে ইনকাম করা হল ফ্রিল্যান্সিং। তাই আপনাকে একটি নিদিষ্ট বিষয়ে অনেক দক্ষ হতে হবে। কোন বিষয়ে অল্প স্কিল বা অল্প জানা দিয়ে হবে না। আমাদের মধ্যে অনেকই একটি বড় ভুল করে সেটা হল কিছু দিন একটা বিষয়ের উপর বেসিক দক্ষতা অর্জন করে আবার সেটা সুইচ করে অন্য বিষয়ে শিখতে চলে যায়। এইটা করা যাবে না। আপনি আজকে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখলেন কালকে আবার প্রোগ্রামিং শিখতে শুরু করলেন এমন অবস্থা হলে কোন দিন সফল হতে পারবেন না। আপনাকে যে কোনো একটি বিষয়ে শিখতে হবে এবং সেই সেক্টরে প্রফেশনালভাবে কাজের দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

৩) শিখার আগে ইনকামের চিন্তা করা

মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা অনলাইন থেকে আয় করবো এমন ভেবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করা যাবে না। নতুন যারা এখন ফ্রিল্যান্সিং করতে আসে তাদের মধ্যে বেশি ভাগ মানুষ এখন স্কিল অর্জন করার আগেই ইনকাম এর চিন্তা করে। যা এই সেক্টরে ব্যর্থ হওয়ার জন্য একটা বড় কারণ। কিন্তু এইটা সত্যি আমাদের প্রতিটা কাজের পিছনে আয় করার একটা ইচ্ছা বা স্বপ্ন থাকে। তবে কাজ শেখার শুরুতেই এইরকম ইচ্ছা থাকলে কিন্তু সমস্যা। কাজ শিখার উপর আপনার আগ্রহ এবং নিজের উপর বিশ্বাস রেখে ধৈর্যের সাথে এই ফ্রিলান্সিং যাত্রা  শুরু করতে হবে। আর একটা সময় পর যখন স্পেসিফিক কোন বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করে ফেলবেন, তখন দেখবেন ইনকাম আপনার হচ্ছে এবং প্রতি মাসে সেটা বেড়েই চলছে।

৪) মাঝ পথে থেমে যাওয়া যাবে না

নতুন অবস্থায় যারা ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে চায় তারা একটা কাজ কয়েক মাস শিখার পর কাজটা বেশ কঠিন মনে করে মাঝ পথে হাল ছেড়ে দেয়। এই কাজ কোনভাবেই করা যাবে না। কারণ শুরুতে যেকোনো কাজ কঠিন বলে মনে হবে। ধীরেধীরে আপনার কাছে সহজ হয়ে যাবে। একটি কথা সব সময় মনে রাখবেন, আপনি যখন কোন কিছু না জানবেন সেটা আপনার কাছে জানার আগ পর্যন্ত কঠিন মনে হবে। কোন কাজই সহজ নয়, আবার কোন কাজ কঠিন নয়। আপনি যখন শিখার জন্য লেগে থাকবে এবং একটু একটু করে শিখবেন তখন একটা সময় দেখবেন সেটা সহজ হয়ে যাবে। আর আপনি কোন কাজ অল্প শিখেই কয়দিন পর আরেক সেক্টরে সুইচ করেন, তাহলে এইভাবে চলতে থাকলে আপনি কখনোই লাইফে বড় কিছু অর্জন করতে পারবেন না।

৫) কাউকে সরাসরি কপি করবেন না

যারা নতুন অবস্থায় ফ্রিল্যান্সিং শুরু করে তারা অনেক সময় আশেপাশের মানুষকে বা তার কোন বড় ভাই বা বন্ধুকে দেখে শুরু করে। আপনি কারও কাছ থেকে আইডিয়া নিতে পারেন কিন্তু সরাসারি কাউকে কপি করবেন না। এখন ধরুন, আপনার বন্ধু ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করে এবং সেটা করে সে ইনকাম করছে, এখন আপনি যদি কোন চিন্তা না করে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করেন তাহলে দেখা যাবে একটা সময় পর আবার সেই কাজটা ভাল লাগবে না এবং আপনি আপনার বন্ধুর মত সফল হতে পারবেন না। তাই কে কি করে লাখ টাকা ইনকাম করছে সেটা না দেখে আপনার যে কাজ করতে ভাল লাগে সেটা দিয়ে শুরু করুন।

৬) অলসতা করা যাবে না

ফ্রিল্যান্সিং এর শুরুর দিকে আপনাকে অনেক বেশি পরিশ্রম করতে হবে। রাত দিন এক করে আপনাকে কাজ শিখতে হবে এবং কাজ করতে হবে। আর ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে সে সকল বায়ার কাজ করায় এদের বেশি ভাগ মূলত অন্য দেশের, তাই তাদের দেশের সময়ের সাথে আমাদের সময়ে বেশ পার্থক্য রয়েছে। তাই আপনাকে রাত জাগার অভ্যাস করতে হবে। শুরু দিকে হয়ত একটু বেশি রাত জাগতে হবে, আর এই বাস্তবতাকে আপনার মেনে নিতে হবে। 

৭) অন্যের কথায় কান দিবেন না

আপনি যখন নতুন কিছু শুরু করতে যাবেন তখন আসে পাশে থেকে নানা মানুষ নানা ধরনের কথা বলবে। কেউ হয়ত পজেটিভ কিছু বলবে, তবে নেগেটিভ কথা বলার মানুষ বেশি হবে। কে কি বলল সেই কথায় একদম কান দেয়া যাবে না। আপনি যে লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করেছেন সেই লক্ষ্য কাজ করে যাবেন। কারও কথায় কান দিয়ে নিজের লক্ষ্য থেকে সরে যাবেন না। নিজের উপর প্রবল আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে।

৮) লক্ষ্য এবং ফোকাস ঠিক রাখতে কিছু কাজ থেকে দূরে থাকতে হবে

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার সময়টা অনেক কিছু থেকে নিজেকে একটু দূরে রাখতে হবে। যেমন: অতিরিক্ত Social Media-তে সময় নষ্ট করা, বিশেষ করে মেয়ে এবং প্রেম সম্পর্কিত বিষয়গুলা থেকে নিজেকে দূরে রাখতে হবে আপনার ফোকাস ঠিক রাখার জন্য। মোট কথা হল, আপনার লক্ষ্য এবং ফোকাসে ধরে রাখতে বাধা দিবে বা সমস্যা করবে এমন সকল কিছু থেকে দূরে থাকতে হবে। Always remember “The future depends on what you do today.”

৯) টাকা অপচয় করা যাবে না

আপনি যখন ইনকাম শুরু করবেন তখন কিন্তু সেই টাকা অপচয় করা যাবে না। অনেকেই এই ভুলটা করে থাকে। ইনকাম একবার শুরু হলে সেই টাকা সব খরচ করে ফেলে। টাকা জমানো বা ইনভেস্টমেন্টের ব্যপারে কোন প্ল্যানই করে না। মনে করে এইভাবেই সারাজীবন ইনকাম হতে থাকবে। কিন্তু আমাদের অবশ্যই ভালো সময়ে টাকা অপচয় না করে প্ল্যান B তৈরি করতে হবে। যাতে হটাৎ কখনও কোন সমস্যা হলে আমারা খুব সহজেই সেই সমস্যার সমাধান করতে পারি।

১০) আত্ম অহংকারী হওয়া যাবে না

আপনি যখন আপনার পরিশ্রম দিয়ে ভাল পজিশনে চলে যাবেন তখন সেটা নিয়ে অহংকার করবেন না। মানুষের সামনে সেটা অনেক বড় করে ফোকাস করবেন না। নিজেকে সব সময় নিজেকে সংযত রাখতে হবে। মনে রাখতে হবে ফুলের সৌরভ আর মানুষের গৌরব চিরদিন থাকে না। আর অনলাইন সেক্টরে এইটা আরও বেশি রিস্কি।

যারা নতুন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে চান তারা যদি এই বিষয়গুলা মাথায় রেখে কাজ করেন, তাহলে আশা করি সফল ফ্রিল্যান্সারের খাতায় নাম লিখতে আপনার খুব বেশি বেগ পেতে হবে না। তবে আপনাকে একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, সেটা হল সর্বদা আপনাকে শিখার মধ্যে থাকতে হবে। স্কিল আপনাকে অর্জন করতেই হবে, নাহলে একটা সময় কিন্তু আপনাকে পিছিয়ে যেতে হবে।

আর আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে কমপ্লিট গাইডলাইন চান, তাহলে জয়েন হতে পারেন আমাদের Fiverr Succes কোর্সটিতে। এই কোর্সে বর্তমানে প্রচুর চাহিদা আছে, এমন ১৮টি ভিন্ন ভিন্ন কাজ হাতে-কলমে শিখানো হয়েছে + Fiverr-এ অ্যাকাউন্ট খোলা থেকে শুরু করে, কিভাবে সফলতার সাথে ফ্রীলেন্সিং করবেন তার A to Z গাইডলাইন পাবেন এই কোর্সে। ৫০০০+ স্টুডেন্ট ইতিমধ্যে এই কোর্সে জয়েন করেছে এবং অনেকেই সফলতার সাথে ফ্রিল্যান্সিং করছে। তাই আপনি সিরিয়াস হয়ে থাকলে জয়েন করে ফেলতে পারেন কোর্সটিতে। Good luck!

Comments

  • User Avatar
    abir25
    December 28, 2023

    অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর একটা আর্টিকেল এর জন্য। অনেক কিছু শিখতে পারলাম পড়ে। আপনার উপদেশ গুলা মেনে চলব

  • User Avatar
    fouad18
    December 28, 2023

    খুবই শিক্ষণীয় বিষয়। ধন্যবাদ। আমি নিয়মিত আপনাদের ব্লগ গুলা পড়ি ভাল লাগে।

  • User Avatar
    maher45
    December 28, 2023

    কোন কাজ গুলা করা যাবে না সেটা এখন বুঝতে পারলাম কিন্তু যারা নতুন শুরু করবে তারা কোন কাজটা দিয়ে দিয়ে শুরু করবে সেই বিষয়ে যদি বলতেন আরও ভাল হত।

    • User Avatar

      ফ্রীলেন্সিং ভালোভাবে শুরু করতে চাইলে আমাদের ফাইভার সাকসেস কোর্সটি করে ফেলুন। কোর্সে ১৮ রকমের কাজ শিখানোর পাশাপাশি প্রচুর রিসোর্স এবং পেইড সফটওয়্যার কোর্সের সাথেই দিয়ে দেয়া হয়েছে। আর ফাইভার মার্কেটপ্লেসে কিভাবে ভালো করবেন তার স্টেপ-বাই-স্টেপ গাইডলাইনতো আছেই। কোর্সের লিঙ্ক চেক করলেই কোর্সের বিস্তারিত জেনে যাবেন। কোর্স লিঙ্কঃ https://www.msbacademy.com/course/fiverr-success

Leave a Reply

error: Alert: Content selection is disabled!!